ঢাকাTuesday , 8 June 2021
সর্বশেষ সব

জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল কিভাবে সংশোধন করবেন

Link Copied!

সরকারিভাবে নাগরিকদের ২০০৮ সাল থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া শুরু করে। শুরু থেকেই পরিচয়পত্রে বিভিন্ন রকম ভুলের অভিযোগ পাওয়া যায়। জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্যে ভুল হলে নানারকম হয়রানিতে পড়তে হয়।

জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে কীভাবে নতুন করে পাওয়া যাবে, পরিচয়পত্রে থাকা বিভিন্ন ভুল সংশোধন এমনকি ছবি পরিবর্তনের উপায় নিয়ে বিস্তারিত

অনলাইনের ভুল তথ্য সংশোধন করতে এনআইডি পোর্টালে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে।

অ্যাকাউন্টেই ভুল তথ্য সংশোধনের নির্দিষ্ট ফি অনলাইনে পরিশোধ করে চাহিদা অনুযায়ী তথ্য হালনাগাদ করতে পারবেন।

ওকে ওয়ালেট বা রকেটের মাধ্যমে নির্ধারিত ফি পরিশোধ করা যাবে। এছাড়া সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমেও পরিশোধ করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, পরিচয়পত্রে যে তথ্য আছে, তার যে কোনো একটি সংশোধন করতে চাইলে প্রথমবার আবেদনের জন্য ৩৪৫ টাকা, দ্বিতীয়বার ৪৬০ টাকা এবং পরবর্তী আবেদন এর জন্য ৫৭৫ টাকা ফি দিতে হবে।

ভুল তথ্য সংশোধনের জন্য কিছু কাগজের কপি আপলোড করতে হবে। যেমন-

* নাম সংশোধনের ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন, মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সনদপত্র, পাসপোর্টের কপি।

* ঠিকানা পরিবর্তনের জন্য বিদ্যুৎ বা পানির বিলের কাগজ।

* বিয়ের পর স্বামীর নাম যোগ করতে চাইলে নিকাহনামা, স্বামীর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি।

* বিবাহ বিচ্ছেদের কারণে স্বামীর নাম বাদ দিতে চাইলে তালাকনামা সংযুক্ত করতে হবে।

যে কেউ উপজেলায় নির্বাচন অফিস থেকে ‘ডাটা এন্ট্রি অপারেটর’-এর সাহায্য নিয়ে বিনা মূল্যে সহজেই কাজটি করতে পারবেন। এ ছাড়া প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ সেন্টার থেকেও অনলাইনে এনআইডি সংক্রান্ত সেবা পাবেন। এছাড়া ওয়েবসাইট থেকে অ্যাকাউন্ট খুলে সব তথ্য ও কাগজ সংযুক্ত করে নতুন জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি কার্ড) নিজেই ঘরে বসে করা সম্ভব।

কোন ধরনের সাহায্য লাগলে কমেন্ট করুন।

আপনার যদি আরো কোনো তথ্য জানার থাকে তাহলে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি ভিজিট করুন এবং যেকোনো ভিডিওর নিচে কমেন্ট করুন। চ্যানেল লিংক:  ক্লিক করুন 
     আমাদের পেইজে লাইক দিন
error: Content is protected !!